ক্ষমতা

When Students took charge to ensure Road Safety.

Illustration taken from Google

Thoughts:

যদি ছোট পরিসরে খেয়াল করি,

তাহলেই দেখব একটু ক্ষমতাই মানুষকে কতটা স্বৈরাচারী মনভাবের করে তোলে।

সেটা হোক কোন মন্ত্রী অথবা কোন সামান্য কর্মচারি। কর্মচারিও একজন মুচির কর্মে রাজকীয়তা অনুভব করেন।

শিক্ষিত মূর্খের দলও আজ ভারী, শুধু স্বার্থটাই আসল হয়ে উঠেছে।

নেশায় মত্ত মানুষের কোন সময় নেই মানবতা নিয়ে ভাবনা, কারন সে তো আছে কাগজপত্রের উপহাসে।

বিত্তবানেরা অট্টালিকায় বসে আজ তামাশা দেখেন, বড়জোর উহ্ আহ্ করেন কেউ কেউ বোকাবাক্সের অথবা মুঠোফোনের নিউজফিড দেখে।

যারা আজ রাস্তায় তারা কারা? এত সাহস এই ছোট ছোট প্রানগুলো পেলই বা কোথায়? আসলে সাহস বেপারটাও যে এদের আবেগ থেকেই আসা, এরা যে স্বার্থের খেলায় এখনও মত্ত হতে শেখেনি।

দেশটা বড় প্রিয় আমার, স্বাধীনতার সেই নিঃস্বার্থ ত্যাগ, জীবনের মায়া না করা জনসাধারণ ভবিষ্যত প্রজন্মকে দিতে চেয়েছিল এক মুক্ত হাওয়ার দেশ, তারা কোন দলের সদস্য ছিলেন না যখন হানাদার বাহিনী তাদের দেহ গুলিতে ঝাঁঝড়া করে দিচ্ছিলো। তারা সাথীদের হারিয়েও পলায়ন পন্থা বেছে নেন নি। তারা শুধু ভবিষ্যত প্রজন্মকে নিয়েই স্বপ্ন দেখেছিলেন, কোনও রক্তের সম্পর্ক ছিলনা কিন্তু ছিল দেশ এবং আত্মার ভালবাসার টান, মানবতার টান।

আসলেই কি এত অবিচারের কোন শাস্তি নেই? ধামাচাপা আর কতদিন? দোষারোপ করা আর কতদিন? দিনের কি শেষ হয়না? হয়। বিধাতার বিধান আজ খুব কম মানুষ তোয়াক্কা করলেও খন্ডানো যায়না, যাবেনা। পূর্বে রাজত্বের পতন যেমন হয়েছে, অন্যায়ের পতন কেউ দেখুক না দেখুক তা অবধারিত।

Date Written: August 4, 2018

© AlvnaKarim

Advertisements

স্পন্দন/Impulse

I’ve written several poems but this one was the second poem that I wrote in Bengali Language. Bangla is a language that is very close to my heart. Didn’t want to translate the lines, so accept my apology but I feel like the translation would’ve snatched the actual flavor & rawness of the poem. But if anyone wants to know then I would definitely share a short summary about it.

স্পন্দন

ভালবাসা সে তো এক বিভীষিকার নাম;
আগুনের মত জ্বলে,
শৈল্পিক এক স্পন্দন।

কিন্তু…..
বুঝে ওঠার আগেই হারিয়ে যায়।

দিন, বছর, যুগ;
বার্ধক্য আসে,
মানুষ বদলে যায়…

মানুষের সেই সারিতে আমি কেমন প্রানী?
যে আজও স্মৃতি আঁকড়ে বাঁচি?

আশা? কেমন আশা?
(অট্টহাসির শব্দ আসে চারপাশ থেকে)

হাহাকার উঠে হৃদয়ের মাঝে,
আর্তনাদে মুষড়ে পড়ি,

বক্ষভেদ করে বিষাক্ত তীর।

১০ মার্চ, ২০১৫
ঢাকা, বাংলাদেশ

© AlvnaKarim

বাস্তবতা/Reality

This is a poem written in Bengali Language. The very first drafted poem of mine, wrote randomly on a paper, in between taking lecture notes. Poetic lines are precious, randomly comes to the brain then disappears. The thought might be the same but if wouldn’t have written down these precious lines, it would’ve lost the essence of keen expression.

বাস্তবতা

কোথায় সেই উচ্ছলতা?
প্রাণবন্ত জীবন…
আমার মাঝে নেই যে আমি,
খুঁজছি প্রাণপন…

উদারতা সে কি তাকে,
জয় করেছি কি আমি?
নিষ্ঠাচারের জীবন আমার,
দিল কি আমায় গ্লানি?

আজ চারদিকে হাহাকার আমার
স্পষ্ট কিছুই নয়,
হাসিমুখ সে তো বাইরে শুধু
ভেতরে অন্ধকার আলয়।

অস্তিত্ব আমার ভেঙে চুরমার,
আগলে রাখি আড়ালে…
চাপাকান্নাগুলো মৃতপ্রায় হয়,
যখন হাসিমুখে মিশি সকলে।

১৪ জুন, ২০১৪
ঢাকা, বাংলাদেশ

© AlvnaKarim